5
(2)

সইও – ৮ ধরণের কীওয়ার্ড নিয়ে আলোচনা করতে যাচ্ছি। প্রতি সেকেন্ডে, গুগলে 40,000 সার্চ হয়ে থাকে। মানুষ কি অনুসন্ধান করে তা জানা যে কোন ব্যবসার/ওয়েবসাইট জন্য অপরিহার্য যা আপনাকে সার্চ ইঞ্জিন এর ফলাফলের প্রথম পেজে আসতে সহায়তা করবে। আপনাকে প্রথম পেজে আসতে যেই বিষয়টা  সাহায্য করে তা “কীওয়ার্ড” নামে পরিচিত, এবং বিভিন্ন ধরনের কীওয়ার্ড কৌশল তা করে থাকে।

উদাহরণস্বরূপ, গুগল সার্চে ইমেজ কিন্তু গুগল এর ফলাফলে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। প্রকৃতপক্ষে, গুগলের প্রথম পৃষ্ঠার ফলাফলের ৯৭% কমপক্ষে একটি ছবি আছে। অপরপক্ষে, কীওয়ার্ড সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা Google এর সার্চ ইঞ্জিন অ্যালগরিদম অনুযায়ী একটি পেজ রাঙ্কিং নির্ধারণ করে।  যেটি সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন (এসইও) এর একটি সফল প্রথম ধাপ।

সার্চ ইঞ্জিন নিঃসন্দেহে মতামত তৈরিতে একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে – পরিসংখ্যানে দেখা গিয়েছে যে সকল ই-কমার্স ট্রাফিকের 39% সার্চ করেই আসে। সুতরাং, কোন ব্যবসা বা ওয়েবসাইট এ এসইও-এর গুরুত্ব উপেক্ষা করতে পারে না।

এসইও তে কীওয়ার্ডের ধরন

কীওয়ার্ড এর বিভিন্নতা আপনাকে সাহায্য করবে আসলে ভিসিটর কোন ধরণের কীওয়ার্ড চাইছে। যেহেতু বিভিন্ন ধরনের কীওয়ার্ড অনলাইনে বিভিন্ন ভিসিটর টার্গেট করে নির্ধারণ করা হয় তাই এটি সহজেই অনুমান করাই যায় ভিসিটর কোন ধরণের কীওয়ার্ড এ বেশি আগ্রহী। তাই টার্গেট ট্রাফিক অনুযায়ী SEO তে বিভিন্ন ধরনের কীওয়ার্ড এর সংক্ষিপ্ত বিবরণ দেওয়া হল।

1. Short-tail keyword

শর্ট-টেইল কীওয়ার্ড হচ্ছে ব্রড ফ্রেস যা মানুষ সাধারণত সার্চ করতে ব্যবহার করে। এগুলি সাধারণত একটি বা দুটি শব্দ নিয়ে গঠিত। শর্ট-টেইল কীওয়ার্ড এর একটি বিশাল পরিমাণ সার্চ ভলিউম আছে কিন্তু এই কীওয়ার্ড গুলা অত্যন্ত প্রতিযোগিতামূলক। তাই শর্ট-টেইল কীওয়ার্ডের জন্য সুস্পষ্ট সার্চ এর উদ্দেশ্য চিহ্নিত করা খুবই কঠিন। 

উদাহরণ হিসাবে বলা যায় যখন কেউ “লেবু” অনুসন্ধান করে তখন তারা হয়ত একটি লেবু দ্বারা কি ভিটামিন সরবরাহ করা হয়, অথবা একটি লেবু কত ক্যালোরি আছে তা অনুসন্ধান করতে পারে। সার্চ এর উদ্দেশ্য সমন্বয় করতে অসুবিধার কারণে শর্ট-টেইলকীওয়ার্ড ভালোভাবে রূপান্তরিত হয় না।

Short-tail keyword এর বৈশিষ্ট্যঃ

হাই-সার্চ ভলিউম, হাই-কম্পিটেটিভ, ব্রড সার্চ ইনটেন্ট, লো-কনভার্সন রেট।  এটি একটি থিম বা নিশ কীওয়ার্ড হিসেবে শর্ট টেইল কিওয়ার্ড ব্যবহার করা যেতে পারে।

2. Long-tail keyword

লং-টেইল কীওয়ার্ড 3 শব্দের বেশি নিয়ে গঠিত। তারা সাধারণত শর্ট-টেইল কীওয়ার্ড চেয়ে অনেক বেশি স্পেসিফিক হয়। লং-টেইল কীওয়ার্ড একটি শর্ট-টেইল কীওয়ার্ড তুলনায় অনেক কম সার্চ ভলিউম হয়ে থাকে।  কিন্তু অনেক কম প্রতিযোগিতামূলক হয়ে থাকে। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে একটি লং-টেইল কীওয়ার্ড দিয়ে আপনি সহজেই সার্চ ইনটেন্ট চিহ্নিত করতে পারেন।

উদাহরণ হিসেবে, " 4 x 12 fl oz S.Pellegrino mineral water"

এর মানে হচ্ছে সার্চার (যিনি সার্চ করেন) এমন ওয়েবসাইট খুঁজছে যারা এই মিনারেল ওয়াটার বিক্রি করে। তাই আপনি যদি তাদের টার্গেট করতে চান, তাহলে আপনার ওয়েবসাইটে এই কীওয়ার্ড দিয়ে বায়িং কনটেন্ট দিতে হবে না হয় আপনাকে ই-কমার্স টাইপ ওয়েবসাইট লাগবে যেখানে প্রোডাক্ট এর মূল্য , শিপিং ফি এবং স্টোর লোকেশন থাকবে। আপনাকে বুঝতে হবে যখন সার্চার এই লং-টেইল কীওয়ার্ড দিয়ে সার্চ করছে তখন তারা সাধারণত এটি ক্রয় করতে প্রস্তুত!

Long-tail keyword এর বৈশিষ্ট্যঃ

লো-সার্চ ভলিউম, লো-কম্পিটিশন, নির্দিষ্ট সার্চ ইনটেন্ট, হাই-কনভার্শন রেট, লং-টেইল কীওয়ার্ড নির্দিষ্ট পণ্য পেজ এবং ব্লগ পোস্টের জন্য লং টেইল কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

3. Short-term fresh keyword

যখন আপনি ফ্রেশ কীওয়ার্ড এর কথা চিন্তা করেন, তখন আপনাকে সাধারণত সম্প্রতি ট্রেন্ড/হাইপ কিছু নিয়ে চিন্তা করতে হবে। ফ্রেশ কীওয়ার্ডের একটি উদাহরণ হচ্ছে দ্যা অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার। (যখন আপনি এই সিনেমাটি নিয়ে পোস্ট লিখছেন তখন সিনেমাটি থিয়েটারে ব্যাপক সাড়া ফেলে দেয়। কিন্তু এটা আপনার জন্য পুরনো খবর) অন্যদিকে দেখবেন iphone এর কোনো নতুন মডেল বের হবার আগেই কিন্তু খবরটা ট্রেন্ড/হাইপ হয়ে যায়। তখন আপনি চাইলে বাজারে নতুন iphone আসার আগেই এইটা নিয়ে পোস্ট কোলেই বেশ ভালো সারা পাওয়া যায়।

Short-term fresh keyword এর বৈশিষ্ট্যঃ

হাই-সার্চ ভলিউম, মাঝারি কম্পিটিশন, নির্দিষ্ট সার্চ ইনটেন্ট, হাই-কনভার্সন রেট, প্রদর্শনের জন্য আপডেট ওয়েবসাইট বা ব্লগ বা এফিলিয়েট তৈরি করতে ফ্রেশ কিওয়ার্ড ব্যবহার করুন।

4. Long-term evergreen keyword

এভার-গ্রীন কীওয়ার্ড গুলো সব সময় প্রাসঙ্গিক হয়ে থাকে। এই ধরণের কীওয়ার্ড এর সার্চ ভলিউম মাঝে মাঝে ওঠানামা করতে পারে কিন্তু খুব বেশি পরিবর্তন হবে না। আসল কথা হচ্ছে, আপনি এভারগ্রীন কীওয়ার্ডের উপর কোনো কনটেন্ট পাবলিশ করার করলে সেই কনটেন্ট দুই /তার অধিক বছর পরেও ট্রাফিক আপনার কন্টেন্ট সম্পর্কে জানতে চাইবেন এবং পড়তে চাইবেন।

তাই এভারগ্রীন কীওয়ার্ডের বিষয়ে আপনাকে নিশ্চিত করতে হবে যে ঐ কীওয়ার্ড এর কনটেন্ট যাতে এভারগ্রীন থাকে এবং এর জন্য আপনাকে প্রতি বছরে একবার কনটেন্ট আপডেট রাখতে হবে। এভারগ্রীন কীওয়ার্ড বেশির ভাগ কনটেন্টগুলা তথ্যমূলক এবং শিক্ষামূলক হয়ে থাকে।

মনে রাখবেন, আপনার সাইট এর অথোরেটি বাড়াতে যদি একটি চমৎকার তথ্যমূলক কনটেন্ট অনেক সাহায্য করে থাকে। এভারগ্রিন কীওয়ার্ড এর উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, সার্চ ইঞ্জিন অপ্টিমাইজেশন। আপনি যত তথ্যনির্ভর কনটেন্ট দিবেন, ততই আপনার সাইট অথরিটি পাবে। যার মানে SERP-এ উপরে অবস্থান করবে।

Long-term evergreen keyword এর বৈশিষ্ট্যঃ

মাঝারি সার্চ ভলিউম, মাঝারি কম্পিটেটিভ, নির্দিষ্ট সার্চ ইনটেন্ট, হাই-কনভার্সন হার; বিস্তারিত, তথ্যবহুল কনটেন্ট তৈরী করুন ও নির্দিষ্ট সময় এর সাথে সাথে তা আপডেট রাখুন।

[jnews_block_11 header_icon=”fa-angellist” first_title=”সাম্প্রতিক প্রকাশিত” number_post=”2″]

5. Customer Defining Keywords

প্রতিটি ব্যবসার একটি টার্গেটেড অডিয়েন্স আছে, এবং একটি ভাল ব্যবসা সবসময় তার গ্রাহকের প্রয়োজন জানে। গ্রাহক সংজ্ঞায়িত কীওয়ার্ড হল সেই ধরনের কীওয়ার্ড যা আপনার গ্রাহকদের সংজ্ঞায়িত করে অথবা অন্তত আপনার গ্রাহকরা কিভাবে নিজেদের সংজ্ঞায়িত করে তা চিহ্নিত করা। উদাহরণস্বরূপ, একটি আর্ট গ্যালারী “শিল্পী” বা “শিল্প কনজিউমার” এর মত শব্দকে একটি কীওয়ার্ড হিসেবে ব্যবহার করে এবং তা কনটেন্ট এ ভালোভাবে অপ্টিমাইজ করে যথাযথভাবে বর্ণনা করে যাতে ট্রাফিক/কনজিউমার এর জন্য আগ্রহ বাড়ে।

এসইও শুধু সার্চের বিষয় নয়। এর মধ্যে রয়েছে আপনার গ্রাহকদের সংজ্ঞায়িত করা এবং এইভাবে সঠিক ভিসিটরকে টার্গেট করা। শুধুমাত্র সঠিক ভিসিটরকে টার্গেট করার মাধ্যমে একজন এমন একটি ব্যবসা/ওয়েবসাইট গড়ে তুলতে পারেন যা গ্রাহকদের সার্চ অনুযায়ী উত্তর দেয়।

6. Geo-targeting keyword

একটি জিও-টার্গেটিং কীওয়ার্ড ব্যবহার করে একটি নির্দিষ্ট এলাকা, শহর, রাজ্য বা বিভাগ, এমনকি এমনকি একিটি দেশকে টার্গেট করতে পারেন। এটি Local SEO জন্য বিশেষভাবে উপযোগী যেখানে আপনি নির্দিষ্ট ও স্থানীয় গ্রাহকদের আপনার স্টোরফ্রন্টে/ ওয়েবসাইট এ আকৃষ্ট করতে পারবেন। 

আমি কিভাবে আমার জিও-টার্গেটিং কীওয়ার্ড পেতে পারি? যাই হোক, এটা আসলে এই তালিকায় সবচাইতে সহজ কীওয়ার্ড টাইপ। আপনার ব্যবসা যে এলাকায় কাজ করে তা হচ্ছে আপনার জিও-টার্গেটিং কীওয়ার্ড শুধু এটাই।

আপনি আপনার নাম, ঠিকানা, ফোন নাম্বার ইতোমধ্যে সাইডবারে/ফুটার দিচ্ছেন, সাথে ম্যাপটাও কিন্তু আপনার লোকাল এসইও তে ব্যাপক সুবিধা দিবে। আপনার কনটেন্ট এ শুধু জিও-টার্গেটিং কীওয়ার্ড ভালোভাবে অপ্টিমাইজ করতে হবে টার্গেটেড ট্রাফিক এর জন্য। যারা লোকাল এসইও করতে চায় তাদের জন্য জিও-টার্গেটিং কীওয়ার্ড অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

Geo-targeting keyword এর বৈশিষ্ট্যঃ

লো-সার্চ ভলিউম, লো-কম্পিটিশন, নির্দিষ্ট সার্চ ইনটেন্ট, হাই-কনভার্শন রেট, লোকাল এসইও এর জন্য প্রযোজ্য।

কম্পিউটার শিখাতে চান আপনার ছোট ভাই-বোনকে? সময় দিতে পারছেন না? তাহলে নতুনদের জন্য কম্পিউটার শিক্ষা আপনার ছোট ভাই-বোনের জন্য।

আর ভিডিও কোর্স দেখতে চাইলে ইউটিউব ফলো করতে বলুন - [embedyt] https://www.youtube.com/embed?listType=playlist&list=PLv3TNNJ3imeK5RGoOyIpUnVm4jxnNByyQ&layout=gallery[/embedyt]

7. LSI keywords

LSI (Latent semantic Indexing) কীওয়ার্ড হল বিষয়ভিত্তিক কীওয়ার্ড যা আপনার প্রধান কীওয়ার্ডের সাথে ঘনিষ্ঠভাবে সম্পর্কিত। এভাবে দেখা যাক, আপনার মেইন কীওয়ার্ড লেবু, এর এলএসআই কীওয়ার্ড হতে পারে লেবু চা, জৈব লেবু, লেবুর পুষ্টি ইত্যাদি। 

একটি LSI কীওয়ার্ড পেতে, আপনাকে প্রথমে মেইন কীওয়ার্ড বাছাই করতে হবে। LSI কীওয়ার্ডগুলো প্রয়োজন হয় যেখানে আপনি একটি ব্যাপক টপিক নিয়ে লিখতে এবং একটি মূল কীওয়ার্ড উপর ভিত্তি করে সব ছোট সেকশন কভার করে লিখতে পারেন।

অন্য কথায়, আপনার কনটেন্ট অন্যান্য কীওয়ার্ড এর মাধমেও খুঁজে পাওয়া যাবে যা ভিজিটররা সার্চ করছে । এই কীওয়ার্ডগুলো কনটেন্ট বা ব্লগ পোস্ট তৈরির জন্য চমৎকারভাবে কাজ করে। LSI Graph এর মাধ্যমে আপনি স্বয়ংক্রিয়ভাবে মেইন কীওয়ার্ড এর LSI কীওয়ার্ড সার্চ করে বের করতে পারবেন।

8. Intent targeting keywords

যখন একজন সার্চার (যিনি সার্চ করেন) কোনো কিছু সার্চ করে থাকে তখন তার তিনটি উদ্দেশ্য থাকে;

  1. Informational
  2. Commercial
  3. Transactional

Informational

ইউসাররা কোনো নির্দিষ্ট টপিক বা আইটেম এর উপর সাধারণ ইনফরমেশনগুলো চায়। তাই আপনি কীওয়ার্ড হিসেবে benefits of, ways to, guide on, facts ব্যবহার করতে পারেন। এইসব কীওয়ার্ড গুলো ইনফর্মাশনাল হিসেবে ভিসিটরদের কাছে পরিগণিত হয়। আপনি WS বা যেকোনো প্রশ্ন টাইপ কেউপ্রদ নিতে পারেন যেমনঃ where, what, who, can, if ইত্যাদি।

Commercial

যেসকল ব্যবহারকারীর কমর্শিয়াল ইনটেন্ট থাকে সেইসব ক্ষেত্রে কেনাকাটা করার ঝোক বেশি থাকে। তাই এইসকল কীওয়ার্ডগুলো কনটেন্ট এর মধ্যে অবশ্যই best, cheap, top, review, specifications, expiration date, place of origin, features রাখার চেষ্টা করেন যাতে প্রোডাক্ট সম্পর্কে ভিসিটরদের ক্লিয়ার ধারণা পেয়ে থাকে।

Transactional

এটি সর্বশেষ ধাপ এসইও ইউসার এর জন্য এই পর্যায়ে তারা অর্ডার করবে। এই পর্যায়ে এসে তারা কিছু বিষয়ে ক্লিয়ার হবার ট্রি করবে যাতে তারা সাচ্ছন্দে প্রোডাক্টটি কিনতে পারে। এই সময় আপনাকে কনটেন্ট এর মধ্যে best price, sale, best quality, guaranteed, no fuss refund এই সকল বিযয় গুলা ক্লিয়ার করতে হবে যাতে ইউসার কিনার সময় সাচ্ছন্দবোধ করে।

ব্লগটি যদি ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। কারণ শেয়ারিং ইজ কেয়ারিং। এসইও নিয়ে আরও বিস্তারিত জানতে চাইলে আমার সাথে ফেসবুকে যোগাযোগ করতে পারেন

বইটি সম্পর্কে আপনার মূল্যবান রেটিং দিন?

Click on star to rate it!

Average rating 5 / 5. Vote count: 2

No votes so far! Be the first to rate this book.

As you found this post is useful...

Follow us on social media!

We are sorry that this book was not useful for you!

Let us improve this post!

Tell us how we can improve our site?