0
(0)

কসর ও জমা করে সালাত আদায় সম্পর্কে কিছু বিধান pdf ডাউনলোড। ইবাদতের ব্যাপারে একটি মৌলিক নীতি হচ্ছে, প্রতিটি ইবাদতের জন্য শরীআতপ্রবর্তক আল্লাহ তাআলা একটি নির্দিষ্ট সময় নির্ধারণ করে দিয়েছেন যা সে সময়ে আদাল করতে হয়, যদি না সেটাকে তার সময় থেকে বিশেষ আবশ্যকতা বা প্রয়োজনের কারণে বের করে অন্য সময়ে করার ব্যাপারে দলীল-প্রমাণদি পাওয়া যায়। আল্লাহ তাআলা বলেন, অর্থাৎ যারা তাদের সালাত সম্পর্কে বেখবর (সূরা আল-মাউন,৫) অর্থাৎ তারা সালাতকে তার সময় থেকে পিছিয়ে দেয়।

অনুরূপভাবে বুখারী,মুসলিম, সুনান, গ্রন্থকারগণ, মালেক এবং আহমাদ সহ অন্যান্যগণ আব্দুল্লাহ ইবন মাসউদ রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণনা করেন, তিনি বলেন, আমি রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জিজ্ঞেস করলাম, কোন কাজটি সর্বোত্তম, রাসূল বললেন, সময়মত সালাত আদায় করা।

আরও ইসলামিক বই দেখুনঃ

কিন্তু হাদীসের দলীল দ্বারাই আবার যে সব রুখসত বা ছাড় দেওয়া হয়েছে তন্মধে অন্যতম হচ্ছে দুসালাতকে জমা করে এক সালাতের সময়ে আদায় করা। আর এ জমা করা যোহর ও আসরে মাঞে হয়ে থাকে। সুতরাং যোহরকে দেরী করে আসরের সময়ে নিয়ে যাওয়া অথবা আসরকে এগিয়ে নিয়ে এসে যোহরের সময়ে আদায় করার ছাড় শরীআত আমাদেরকে দিয়েছে।

অনুরূপভাবে এ জমা করার সুযোগ রয়েছে মাগরিব ও ইশার মাঝে, সুতরাং মাগরিবকে দেরী করে ইশার সময়ে নিয়ে গিয়ে দুটোকে আদায় করা, অথবা ইশাকে এগিয়ে নিয়ে এসে মাগরিবের সময়ে মাগরিবের পরেই আদায় করে নেওয়ার সুযোগ ইসলামী শরীআত আমাদেরকে দিয়েছে। কিন্তু ফজরের সালাত, আলেমগণের ঐকমত্যো তাকে এগিয়ে নেওয়া কিংবা পিছিঠয়ে দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। বস্তুতঃ সফর অবস্থায় দুসালাত জমা করে আদায় করার মাসআলাটি অনেক গুরুত্বপূর্ণ।

অনেকেই এ বিষয়টি নিয়ে প্রশ্ন করে থাকে;অনেকেই আবার এর অনেক মাসআলা সম্পর্কে সম্যক ধারণা রাখে না, অথচ বিষয়টির প্রয়োজন অনস্বীকার্য। তাই এখানে এ বিষয়ে কিছু মাসআলার অবতারণা করার প্রয়াস পাবো। প্রথমেই এটা জানা দরকার যে, মহান আল্লাহর রহমত, তিনি মুসাফিরের জন্য সালাত জমা তথা একত্র করা বিধিবদ্ধ করেছেন। এটা আল্লাহর পক্ষ থেকে রহমত ও ছাড়। কারণ মুসাফির এমন কিছু অবস্থা ও পরিস্থিতি সম্মুখীন হয়ে থাকেন তাতে প্রতিটি সালাতকে তার নির্দিষ্ট সময়ে আদায় করা কঠিন হয়ে পড়ে।

আলেমগণ এ ব্যপারে ইজমা বা ঐকমত্য পোষষ করেছেন যে আরাফার দিন যোহর ও আসরকে এগিয়ে নিয়ে যোহরের সময়ে জমা করে আদায় করা শরীআতসম্মত। অনরূপভাবে তারা এ ব্যাপারেও একমত পোষণ করেছেন যে, আরাফার দিন সূর্য ডুবার পর নাহরের রাতে মুযদালিফায় মাগরিব এবং ইশা একত্র করে ইশার সময়ে পড়া শরীআতসম্মত। দেখুন, আল-ইমা ইবনুল মুনযির, পৃ.৩৮; মারাতিবুল ইজমা পৃ.৪৫।

নিচে কসর ও জমা করে সালাত আদায় সম্পর্কে কিছু বিধান pdf বই এর স্ক্রীনশট ও ডাউনলোড লিংক দেওয়া হলোঃ 

কসর ও জমা করে সালাত আদায় সম্পর্কে কিছু বিধান

বইয়ের প্রকাশকঃ     
বইয়ের ধরণঃ    ইসলামিক বিষয়ক বই  
বইয়ের সাইজঃ   1.25 MB
প্রকাশ সালঃ    2014
বইয়ের লেখকঃ    আবু বকর মোহাম্মাদ যাকারিয়া 
অনুবাদঃ    

 

ডাউনলোড সার্ভার-১ঃ Download Now

Join Our Facebook Group

যদি ডাউনলোড করতে কোন সমস্যা হয়। আর ওয়েবসাইটটি আপনার উপকারে কাজে আসলে আপনি একটি শেয়ার করে দিন। শেয়ার করুন সওয়াবের আশায়, কারণ আপনি ভালো কাজে এবং ভালো উদ্দেশ্যে শেয়ার করছেন। আর প্রত্যেক ভালো কাজের বিনিময় আল্লাহ আপনাকে দিবেন।..!!

বইটি সম্পর্কে আপনার মূল্যবান রেটিং দিন?

Click on star to rate it!

Average rating 0 / 5. Vote count: 0

No votes so far! Be the first to rate this book.

As you found this post is useful...

Follow us on social media!

We are sorry that this book was not useful for you!

Let us improve this post!

Tell us how we can improve our site?